Friday, 10 September 2010

ঐতিয্য

সতী দেহ লয়ে কাঁধে, মহাকাল সম


প্রেমের পরিনিতি, ছিন্ন ভিন্ন

অঙ্গ প্রত্যঙ্গ , আকাশ পথে হইতে

ঝরেছে ধরিত্রীর বৃক্ষে

স্নায়ু, মজ্জা,হাড়, মাংস, রুধির

বিন্দু বিন্দু প্রতিটি অংশ

ভুমিশাত করেছে ক্ষুদিত

কিছু নিশাচর মানুষ,

প্রগাড় রাত্রির পার্শ্বে উল্কাপাত,

পান্থশালার অনাম নামাবলী

নিশীথে জেগে উঠে ভয়াভয় রূপে,

দেহের গিদ্ধ ভোজ সারা রাত,

অরুনোদয়ে কুলিন মুখ করবদ্ধ

কালিঘাট মন্দিরে পুষ্পাঞ্জলি দিয়ে

পাপমুক্ত, কোন প্রবাহে বহে জীবন স্রোত

শুধুই মহাকাল জানে --

ঘোলাটে গাঙ্গধারা, প্রতিচ্ছবি অস্পষ্ট

ঘাটে ফেলানো কিছু অতীতের প্রস্তর খন্ড

ভাঙা বুড়ো শিবের দেউল

জটাধারী বট বৃক্ষ

ভেসে যায় স্থির তরঙ্গে সব ঐতিয্য ও

অর্ঘ্যের পুষ্প,

-- শান্তনু সান্যাল