Thursday, 31 March 2011

জ্বলে অদৃশ্য দীপশিখা ----
অশান্ত মনে অস্থির চিত্তে দিও না নৈবদ্য খানি
সাধনার পথে জড়িয়ে মায়ার পরাশ্রয়ী ব্রততী,
যজ্ঞের জ্বলন আনে ক্রমশঃ নয়নে কোণে নীর
ধুম্র বলয় ঘনীভূত রূপে করে ঝড়ের আমন্ত্রণ,
প্রেমের উপগ্রহে সাজিয়ে স্বপ্নের কল্প ইহলোক
আত্ম  সমর্পণের পরে কিসের যে আত্মমন্থন !
ওই দেবালয়ের গর্ভগৃহে জ্বলে অদৃশ্য বাতি -
দেখিতে যদি না পেলাম তা উত্সর্গের নিয়তি,
মহা অন্তরীক্ষে ঝুলে প্রেয়েসির পুষ্প দোলনা
স্পন্দন দুলিয়ে রয় দিবা নিশি সে অনন্ত প্রীতি,
খেলে যায় রৌপ্য বরণী মেঘের শিশু নিরন্তর
দুঃখ সুখের ছায়া নিয়ে আনে গ্রীষ্ম  শ্রাবণ -
বজ্রধ্বনির সঙ্গে টেনে লয় সে বক্ষে ভয়াক্রান্ত
অবোধ, দিগভ্রমিত, নিরীহ সমস্ত চেতনা !
--- শান্তনু সান্যাল