Friday, 7 January 2011

কলকাতা ডায়রি

কলকাতা ডায়রি
পুরনো বইর দোকানে খুঁজতে গিয়ে
ছিলাম, জীবাশ্ম শাস্ত্রের নামকরা
লেখকের বই, হয় তো রাশিয়ান কিংবা
নার্ভেজিয়ান, তুমি ই সেধে বললে
পাষানের শাস্ত্রে কী ভালবাসার আমেথিস্ট
ও থাকে না কী ! আমি মুখ ন দেখে ই
বললাম, সে তো জানি না -
তোমার অপরচিত সেই প্রশ্নময়ী আলাপ
ভূগর্ভ শাস্ত্রের পরিভাষা দারুন ভাবে
বদলিয়ে, দিয়ে গেছে যেন -
বিস্তৃত এক অনুসন্ধানের পথ,
ওই এক পশলা বৃষ্টির মাঝে, গল্পের
মধ্যে কলেজ স্ট্রীট হইতে বেথুন
কবে আমরা পৌঁছিয়ে গেছি মনে নাই,
আমেথিস্ট র বাংলা অনুবাদ সেই
আদ্র ভাবসে নিশীথে চেয়ে ছিলাম করতে,
পারি নি, জীবনের জাদুঘরে  সব কিছু ই
উপলব্ধ থাকে, জরুরি নয়
---- শান্তনু সান্যাল

অনেক দিনের পরে

অনেক দিনের পরে তুই আসলি
ভালই লাগছে, ত্রিস কী চল্লিশ বছরের পরে
আজকাল জানিস অনেক কিছু গুলিয়ে যাই
এই চশমাটার কী যে আবদার বুঝি না
মাঝে মাঝে আবছা
আবার অনেক সময় উজ্জল হয় উঠে
আবার দেখা হবে  ভাবতেই পারি নি
যাক, আর বল- কোথায় যে বসবি
জীবন আর এই তক্তপোষ, বেশ মিল না
একটু সাবধানে যেন বসিস
এই লাটুবাবু লেনের ঠিকানা ত কেউ ই জানে না
খুঁজতে নিশ্চই কষ্ট হয়েছে
এমনিতে খুব একটা কেউ আসে না
আসবে ও বা কেন, এই অন্ধ গলি তে
ভাড়া র  ঘরে, স্মৃতিগুলো কবে যে মরে গেছে
সবাই তোকে অবশ্যই অবাক চোখে দেখেছে
বলিস নি ত যে ত্তুই আমার এক কালের
বন্ধু, তথাকথিত বিদ্রোহী বন্ধু
যাক গে, বল- ওই মুম্বাই  থেকে এত দূরে
ভালই ত আছিস নাম আছে সুখ্যাতি ও কম নয়
প্রতিবেশী বাড়ির টিভি তে প্রায় তোর মুখ দেখি
ভালই লাগে, সবাই তোকে ভালবাসে
জানিস সেই যে তুই হটাত নিরুদেশ্য হলি
আমি সে দিন খুবই দুখিত ছিলাম
আমরা নিম্নবিত্তীয়, জামিন পাই নি
কাচা সেই বয়সে মনে হয়ে ছিল যে তুই
বিশ্বাসঘাতকতা করেছিস
কিন্তু আজ ভাবি ভালই করেছিস
বাঁচিয়ে নিলি গোটা কুটুম্ব কে
আমি জানতে চাই না তোর অকস্মাত
আসার কারণ -
কিন্তু তোর কিছু বিদ্রোহী কবিতা, উপন্যাস
প্রবন্ধ আমি এখনো সংগ্রহ করে রেখেছি
ওই উই ধরা কাঠের বাক্সের ভিতরে
নিয়ে যা হয় তো সিনেমার জন্য ভালো প্লট হবে
আর বল কী বা দিতে পারি, তোর জিনিষ তুই নিয়ে
যা, আমি না অতীত নিয়ে বাঁচতে চাই না /
--- শান্তনু সান্যাল