Friday, 25 March 2011

অসমাপ্ত জ্যোত্স্না রাত্রি -
মিনার হইতে উঠেছে চাঁদ কি দেউলের শিখর পেরিয়ে !
জোছনারা ভবঘুরে,দিয়েছে নদীপারে ডেরা,ছাউনি বিহীন
শ্মশানের লাগোয়া কবরের নগরী,নিশীথ রাতে কারা কথা
কয়, কোন ভাষায়, কি গল্প করে, আবার দেখি হেসে যায় !
হাসির ঢেউএ অশরীরী ভালবাসা করে বৃন্দগান,হেঁটে চলে
তটবন্ধের উপর দিয়ে, পূর্ব মুখী বিহানের দেশে,না কি ওই
ভূখণ্ডে অশেষ,অনন্ত কালের এক ঝরনা ঝরে অবিরল ভাবে!
ওই মুক্তির পথের যাত্রির কোনো পরিচয় পত্র লাগে না,তারা
সবুজ, গেরুয়া, নীল,লাল রঙের বাহিরের মানুষ, আসলে -
তারা অব্যাহত,অদীক্ষিত,কি নাস্তিক জানি না,আপনমনে
করে যায় ভালবাসার রহস্য ভরা গান,ঝরে চন্দ্র রশ্মি পূর্ণ
যৌবনে সারা রাত, চাঁদ ডুবতে চায় না দর্শনের অম্বরে !
-- শান্তনু সান্যাল





অ-সংজ্ঞায়িত
দৃষ্টির ভিতরেও দৃষ্টি সমাহিত প্রকৃতির নিয়ম
খুবই জটিল,আছ জড়িয়ে বুক খানি, ষষ্ট নেত্র
খুলে রয়েছে কিন্তু অনন্য প্রান্তরে,  অভিনব -
কিছু প্রাপ্তির আশায় ধেয়ে চলেছে মন অবিরাম !
এই সুপ্ত আগ্নেয় গিরির উত্সে আছে অজানা
অনেক বহ্নিশিখার শাখা প্রশাখা, কোথায় গিয়ে
ভিড়বে তরী নদীর উতলা জলে বিম্বিত চন্দ্র
সে কি জানে !প্রাণ ঢেলে দিও ন ভালবাসা -
অকস্মাত যদি ভেঙে যায় আকাশগঙ্গা, হৃদয়
চায় কিছু অন্তরাল, নিরাপদ আশ্রয়, দূরত্বের -
কুহেলিকায় ঘনিয়ে রেখো জীবনের প্রহেলিকা !
কমল নাভি তে দেখেছি প্রেমের বিরাট উপগ্রহ
অলির আতঙ্ক ও সমীহে, পরাগের ব্যাকুলতা,
এই অস্থিরতার মাঝে খুঁজি দিব্য প্রেমের ছায়া,
--- শান্তনু সান্যাল