Monday, 3 January 2011

মাটির প্রদীপ

মাটির প্রদীপ 
অবশেষে মেঘেরাও বিমুখের পথ নিল 
কিছু ক্ষণ তোমার সমীপে ছিল বৃষ্টিছায়ার 
সংকুচিত ভূভাগ, দুপুরের অলস ভরা 
রোদ আবার হেলান দিয়ে রয়েছে,
আধ নুয়া সেই খেজুর গাছের গায়ে 
কিছু আলো ছায়ার মাঝে স্বপ্ন উঁকি 
দিতে চায় সবুজ সেই মৃত পুকুরের পারে,
দূর বহু দূর রেলের  ধড়ধড় শব্দে
উড়ে যায় চড়ুই পাখির ঝাক, যেন
 মৌন মিলনের ভাষা, গেছে ছড়িয়ে 
সাঁঝের কাঁথায় প্রীতির পুরনো গন্ধ,
জীবনের গ্রীষ্মে হটাত যেন প্রথম 
আষাড়ের বৃষ্টি, তোমার অপ্রত্যাশিত 
 গায়ে হাত ছুঁয়ে বলা, যে তুমি দিব্যি 
নিয়ে বলছ - তুমি শুধুই আমায় -
ভালোবাসো, আর দেখছ অমন ভাবে 
চার দিগে যে কেউ শুনে তো নেই নি,
ওই নিরিবিলি তে আমিও চেয়ে দেখি 
আসেপাসে কে বা আছে, সেই লমহায়
তুমি মাছ রাঙ্গা সম উড়ে গেছ -- 
দেউলের তুলসী তলায় মাটির প্রদীপ, 
সলতের কেঁপে যাওয়া আর আমার 
হৃদয়ের সমীকরণে তুমি হয় উঠ 
মৃদু বৈশাখী ঝড়, আমি জেগে থাকি 
নিভে যাওয়া সেই প্রদীপের রিক্ত নিঃশ্বাসে
আগামী সাঁঝের পথ চেয়ে ---
--- শান্তনু সান্যাল