Saturday, 9 April 2011


অসমাপ্ত ইচ্ছা 

অসীম প্রণয়ের আহুতি
বেগবান প্রবাহিত 
আকাশিয় জলরাশি 
ধায়িত জন্ম জন্মানন্তরে 
অদম্য দাবাগ্নি অবিরাম 
মরু, সাগর, নদী, পাহাড়, 
 উপত্যকা অপার 
হইতে ফিরে
ফিরে আসে জীবনের 
অন্তবিহীন 
প্রতিধ্বনি নিসর্গ ভরে যায়
দিবস রজনী 
চিরকাল রং, রূপ, গন্ধের 
মাধুরী, চন্দ্র সূর্য্য 
ঢেলে রয় উষ্মা অশেষ 
মনের সেই বন্য মাদকতা 
খুঁজে সমর্পনের আদ্র ভূমি 
মহাকায় তরু শাখা উর্ধ্বকার 
ছুঁয়ে মেঘের সীমানা 
প্রাণ বায়ুর ইতস্তত ছাড়িয়ে
 দেওয়া স্বপ্নের বীজ
ঘুমিয়ে পড়ে সুকনো পল্লবের 
আঁধারে, সকালের 
প্রথম আলোয় 
ভাঙে কিশলয়ের তন্দ্রা 
অঙ্কুরিত প্রণয়শিশু জড়াতে চায় 
উচ্চতম সবুজ শামিয়ানা
কান্ডের রুক্ষ দেহে 
উঠে আসে 
জীবন সোপান, কোমল 
লতিকা
জীর্ণ শীর্ণ ঝরিত 
পাতার মধ্যেও  
ঠিক খুঁজে নেয় কান্ডের 
 উত্পত্তি!
আত্মসাত করে সূর্যের 
প্রথম কিরণ, অসমাপ্ত কামনা 
অম্বর মুখী অগ্রসর যাত্রা -----
---- শান্তনু সান্যাল

অনন্ত পথে ----


অন্তিম নিমজ্জন
থাম কিছু ক্ষণ
আবেগের বান
ভাঙুক ---
চোখের আলো
চুষে নিক গহ্বর
আন্ধারের আবেশ
বাড়ুক ---
অন্তর্মনের কৃষ্ণকলি
ফুটুক পূর্ণ ভাবে
বিন্দু বিন্দু ঝরুক
ঘনীভূত নিঃশ্বাস
হৃদয়ের জুয়ার উঠুক
ছুঁয়ে যাক তৃষিত
মরু নীলিমা ----
চাঁদ ডুবুক নিজের
মনে বক্ষের ঝিলে
নেমে আসুক মেঘের
উদ্দীপনা তড়িত বেয়ে
বহিয়া যাক শ্রাবণ
আমার দেহ হইতে
তোমার আত্মার কোষে
ঘটে যাক প্রলয়ের তান্ডব
এই নিশীথে জ্বলুক
চন্দন বন ভরে যাক
জীবনে অশেষ সৌরভ
বিহান থেমে থাকুক
ক্ষিতিজের কোণে ----
ধরে রাখো মেরুদন্ডের
অনল মণিরেখা
প্লাবিত হোক পৃথিবী
ডুবে যাক চন্দ্র সূর্য্য
দেউলের চূড়া উচ্চ গুম্বদ
ভাসুক জলে বিশ্বের
দর্শন, মহা শাস্ত্র খানি
জড়িয়ে বুকে যাব তবু
সুরসরি পার হয়ে
স্বর্গের অপার প্রণয়ের
অন্তঃপুরে দুজনে ----
---- শান্তনু সান্যাল 
 

অভিমানী সুর
প্রতিশ্রুতির সাঁঝ গেছে ঢলে,
ঘনিয়ে গেছে অপেক্ষার আঁধার
 সরোবর, কমলিনী, ভাশ্যমান পূর্ণ শশি
তরু ছায়া, নিঃস্তব্ধ জল রাশি   
হারানো প্রতিধ্বনি, মধ্য রাত্রি
প্রগাঢ ঘুম, আবেগে প্লাবিত বর্ষা বন
 স্বপ্ন জাল, নীহারিকার বিলীনতা
আকাশ গঙ্গার মরিচিকা,বিচলিত মনের
দশা, হস্ত রেখায় ভাগ্যের শিহরণ
নয়নের গভীরতা,লিখে গেছ তুমি হৃদয়ে
অজ্ঞাত ভাষায় মহা কাব্য খানি !
প্রাচীরের গায়ে শেওলা,বনলতার নেমে -
উঠা, সিঁড়ি ভেঙে জোছনার ছাতে
যাওয়া, বাহুপাশে তোমায় পাওয়া
প্রহরী নিশি পুষ্পের ঘুম ভাঙানি !
সুরুভীর ঢেউ বহিয়ে নিয়ে যায় সুদুর
ফাল্গুনী পাহাড়ের দেশে, মৌ ঝরে -
অধর নদীর তীরে, চন্দ্র যায় ডুবে
অরণ্যের পথ হারানো, জড়িয়ে আনে
অন্তিম প্রহরে, তোমার অভিমানী সুর !
--- শান্তনু সান্যাল