Saturday, 18 June 2011

আঁধার নামার আগে

অবহেলিত, অগ্রাহ্য, ফেলানো
পচা কিছু শ্রদ্ধা সুমন ভেসে যায়
নদীর তীরে -
প্রাচীন মন্দির ঘাটের সোপান
ছুঁয়ে যায় নিয়তির পরিণাম
আজ যে আছে নয়নের মণি
কাল হয় ত যাবে হারিয়ে
পরিচয় হীন এই ত নিসর্গের
নিয়ম বড়ই জটিল
ব্যতিক্রমের ওপারে ভালোবেসো
না আমায়, বন্ধু কিছু জায়গা
রেখো ছিন্ন স্বপ্নের লাগি
ওই কিছু দুরে, মৃতদেহ ভেসে যায়
তীরের শ্বান বৃন্দ
লোভাতুর চোখে চেয়ে রয়েছে
গলিত হাড় মাংস, মৃত শরীর কি
জানে কারা ভাসিয়ে গেল
কাঞ্চন পৃথিবী, পঞ্চ তত্বের মায়া
সে বন্দ চোখে দেখে হয় ত বিশ্বের
মহা দর্শন, আকাশে ঘুরে
অবিরাম ঘুর্ণনে গাঙ্গ চীল, শকুনি
মৃত্যু কে ফাঁকি দেওয়া এতই
কি সহজ, দেউলের সান্ধ্য পূজা
উতুঙ্গে, শঙ্খ ধ্বনি, বৃন্দ গান
মিশে চলেছে একাকার
পাসের সেতু পার করে গেছে
এই মাত্র তিব্রগামী রেল
নৌকা গুলো ফেলে চলেছে নোঙর
পুরোহিতের পূজা হয় ত শেষ
আঁধার ঝাপ দিয়ে চলেছে
নদীর বুকে, রাত্রি নামবে কিছুই ক্ষণে !
-- শান্তনু সান্যাল