Monday, 13 June 2011


যদি ভালোবাসো

আজ রাতে অহং শল্ক গেছে বদলিয়ে
দেহের ডুব সাঁতার কাটায় লেগেছে
ইন্দ্রধনুর রং, থামো ত দেখি
কিছু ক্ষণ কেটে আসি বিষ দন্ত
লুপ্ত প্রাণঘাতী নখের ধার,
দেখে আসি শেষে আতঙ্কের মুখ
এই রাতে মন চাহে
হতে স্বয়ং সিদ্ধ পূর্ণ পুরুষ,
এই মুহুর্তে নামিয়ে এলাম ঈর্ষা, ঘৃণার
মলিন বস্ত্রখানি, কিছু ক্ষণ দিও
বন্ধু, হৃদয়ের দূষণের মুক্তি
এখনো আছে বাকি,এই মধু লগনে
চন্দনের পরশ হয় ত যাবে
ছুঁয়ে, তোমার পবিত্র নিঃশ্বাসে জেগে
আছে নাকি দেবদূতের বাণী,
কাঞ্চন দেহে লিপ্ত রয়েছে
বহু স্বপ্নের কিশলয়, কিছু সময় দিও
হে প্রিয় বন্ধু, দেহ চায় পরিত্রান, 
প্রায়শ্চিত, মনুষ্যতার অগ্নিস্নান,
পবিত্রতার পরীক্ষা,ব্যক্তিত্বের বিশালতা,
ওই দর্পণের দাবি মিটিয়ে
আসি আগে, অন্ততঃ হয় উঠি মানুষ
এই লঘু রাত্রি এখনো অশেষ
অপেক্ষা কর কিছু পল অতিরিক্ত
অভিন্ন মিত্র, যদি ভালোবাসো,
-- শান্তনু সান্যাল 

আরোহী মন 

নিরব রাতের নিস্তব্ধ পথে 
শুন্য ভেঙে ভাসে করুণার সুর 
মর্ম কন্ঠে কে গাহে মধ্য নিশীথে 
কম্পিত নিঃশ্বাসে জীবনের গান,
ঘুমন্ত চোখে দেখি রহস্যের সেই 
পথিক ধরতে চায় জোনাকির 
আলো,উড়ে চলেছে স্বপ্নিল উদ্ভাসন,
আকাশ হইতে ঝরে বিন্দু বিন্দু 
প্রদীপ্ত প্রণয়ের শিশিরের কণা,
অবাক পৃথিবী চেয়ে রয়েছে 
সুরুভি ও জোছনার মিলন মেলা,
রজতনিভ আঁধারে নয়নের তীরে 
স্বপ্নের মাঝি বেঁধে গেছে ময়ুর পঙ্খী
নৌকো,আবেগের লহর শয়নের 
পথে সাজিয়ে চলেছে সিক্ত নিশিগন্ধা,
মাতিয়ে গেছে কে যেন হৃদয়ের 
উপত্যকা মহুয়ার মাদক গন্ধে,
নেমে আসছে তারকের শোভাযাত্রা 
অন্তরিক্ষের নীলাভ শুন্যে 
লিখে চলেছে মন অমূল্য কবিতা,
বাঁসুরির সেই বেদনে জেগে আছে 
বেঁচে থাকার অদম্য অভিলাষা,
তোমার ও আমার অটুট ভালবাসা,
এই মধুর স্বপ্নে জীবন যায় হারিয়ে 
বারে বারে,চেয়ে থাকে শেষ প্রহরে মন  
চাঁদের ডুবে যাওয়া, বিহান শেষে 
নিঃশব্দ লয়ে ঝিলের উপরে জাদুর 
কুয়াশা ছড়িয়ে দিয়ে গেছে 
বিলুপ্তির অজানা সীমান্তে,কমল
পাপড়ি খুলে চলেছে অন্তর্মন 
সূর্যের কচি আলোয় করুণ সুর 
হয় উঠেছে পরশ পাথর, অগ্রগামী 
অশ্বারোহী আরোহণের পথে অগ্রসর -
--- শান্তনু সান্যাল