Wednesday, 20 June 2012


প্রতিফলন বিহীন আয়না 
জীবন্ত দহন নিয়ে দেহে সে ঝলসিয়ে যেতে 
চায়, পুরুষালি কায়া, হাড় মাংস,
লোমছিদ্র হতে আন্তরিক 
অংশের ভিতরে, 
ভাবনা 
অভাবনার মূল্য তার কাছে বৃথা অরণ্য -
রোদন, তার মনোভাবে প্রকৃত 
প্রণয় শীর্ষে, দুই দেহের 
মিলন বিন্দুর মুখে 
দাঁড়িয়ে রয় 
চরম 
অভিলাষা, ওই আদিম প্রেমের পরিভাষা;
হয় ত তথাকথিত সভ্য সমাজের 
কাছে অশ্লীলতা, নেহাত 
ভোগ লিপ্সা, কিন্তু 
কোথায় যেন 
সে বিশুদ্ধ
সত্যের করে প্রাণ প্রতিষ্ঠা, নামিয়ে দিতে 
চায় মুখোশের সত্তা, শরীর থেকে 
নির্গত আত্মার খোঁজ তখন 
এক বিরাট প্রশ্ন চিহ্ন,
দেহের মাঝে 
পৃথিবী,
আকাশ, মহাসাগর, নীহারিকার আলো, অজ
 বীথি, নিঃশ্বাসের সেই জগতের বাহিরে 
কেবল মরিচিকা, স্পন্দনের 
সমাপ্তির পরে অভিন্ন 
শয্যাসায়ী মানুষ 
করে চাপা 
আতঙ্কিত ঘৃণা, শরীর নিয়ে যাবতীয় হিংসা 
প্রতিহিংসা, আচার বিচার সব কিছু 
অর্থহীন, প্রাণ বায়ু যখন হয়
উঠে বিলীন, তার ওই 
পারদর্শী দর্পণে
পরাবর্তন 
যায় থেমে, ভেসে উঠে উলঙ্গ শরীর চোখের ঠিক 
সামনে, সেই আবরণ বিহীন জীবন 
শুধিয়ে যায় দেহের বাস্তবতা,
খুলে খসে পড়ে স্তর প্রতি 
স্তর ছদ্ম যবনিকা,
ক্রমশঃ 
আঁধার হতে দেহ ভেসে যায় অজানা আলোর স্রোতে !
- শান্তনু সান্যাল
http://sanyalsplanet.blogspot.com/

  
Painting by Sena Wilson 

No comments:

Post a Comment