Wednesday, 28 October 2015

পাগল নদীর তীরে - -

আমি চিরকালের দিশান্তরী, আজও তাই
খুঁজে বেড়াই টেকসই আস্তানা, পূর্ব -
পুরুষের মুখে শুনেছি বহু গল্প,
কোন এক পাগল নদীর
তীরে ছিল নাকি
আমাদের
তথাকথিত ভিটেমাটি, নদীর ভাঙনের -
ব্যথা ছিল সহনীয়, সময়ের সাথে
হয়ে উঠেছিল জীবনের অঙ্গ,
ওই ভাঙা গড়ার মাঝে
সব কিছুই ছিল
যেন প্রকৃত,
সবাই ছিল পারস্পরিক জড়িত, পরস্পর
এক সুরে বাঁধা, ভালো মন্দের সাথী,
কিন্তু কোন এক দুর্ভাগা সকালে,
হটাৎ তারা দেখে সব কিছু
যেন এলোমেলো, সেই
দুঃস্বপ্নের ভোর
হতে এক
অসমাপ্ত স্থানান্তরণ, সে দিন নদী ছিল - -
খুবই অনুতপ্ত, আজও বহু কালের
পরে সে শুধায়, ''আমি কিন্তু
খুব একটা বদলায়
নি, আমি
যুগ - যুগান্তর ধরে বহে যাই আমার লয়ে,
আমি মানুষ নির্মিত ওই শৃঙ্খলের
বাইরে, আমি দেখেছি ওই
ধর্মের বিভৎস রূপ,
যার আগুন
আজও পুড়িয়ে চলেছে সুদুর নীল নদ হতে
গঙ্গা - পদ্মার সবুজ প্রান্তর, আজও
আমি চাই মহাপ্লাবনের মহা -
ধারা, কিন্তু আমি
ভাবপ্রবণ,
এই সুন্দর সৃষ্টির অন্ত দেখতে চাই না, তাই
নীরব চেয়ে রই শারদীয় আকাশ !
* *
- শান্তনু  সান্যাল




No comments:

Post a Comment