Friday, 20 April 2012


নিশাচরের ফিরে যাওয়া 

জীবান্তক আঁধার গিলে নিতে চায় গোটা অস্তিত্ব,
এমন সময় জীবন খুঁজে বক্ষঃস্থলের আশ্রয়, 
উদ্বর্তনের পুরাতন, আদিমযুগীন সেই 
অনুশীলন, উলঙ্গ দেহ ও জ্বলন্ত 
কাঠের সমন্বয়, গিরিপাদ 
হতে বুনো কুকুর 
গোষ্ঠির 
নেমে আসা, অন্ধকারে লকলক জিভের পড়ন্ত 
লালার চমক, প্রতিরোধের নৈসর্গিক বৃত্তি,
পুরুষত্বের জাগরণ, অন্যান্য থেকে 
রক্ষা নিজের মধ্যে বিলয়ন, 
সে দিন ও তাই ঘটে 
ছিল আজকে ও 
তাই ঘটবে, 
ব্যতিক্রম বলতে কিছুই নয়, জৈবিক প্রক্রিয়া
চিরন্তন বহাল, অনুঘটক কিছু ও হতে 
পারে, পুরুষ কিংবা নারী, মানুষ 
অথবা পশু, এমন কি লিঙ্গ 
ভেদ ও ওই মুহুর্তে 
অর্থহীন, 
শিকারী ও শিকারের  মাঝে মানসিক মৃগয়া,
সনাতন প্রবাহ বহে যায় অরণ্য থেকে 
ফুটপাথ, ঘিঞ্জি বস্তি হতে কুলীন 
বনেদী বাড়ী, ভালবাসা 
বলতে নিবন্ত কাঠ 
যত ক্ষণ 
জ্বলে 
কবিতার রূপ ধরে নিভলেই কুত্সিত ছাই, 
হালকা হাওয়ায় উড়ে যায় বহু দূরে,
তখন প্রেম বুনো কুকুর, শুঁকতে 
চায়  ক্ষরিত  রক্তের গন্ধ, 
নিশুতি রাতে করে 
অনুধাবন,
সকালের ঝাপসা আলোয় ফিরে যায় পাহাড়ে.

- শান্তনু সান্যাল
painting by Ivan Konstantinovich Aivazovsky 
  

No comments:

Post a Comment